রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০১:১৭ অপরাহ্ন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৭৭২,১২৭
সুস্থ
৭০৬,৮৩৩
মৃত্যু
১১,৮৭৮
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট

ঈদগাঁওর গ্রামাঞ্চলে করোনা আতংক : উদ্বিগ্ন সচেতন মহল 

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১
কক্সবাজার সদরে ঈদগাঁওর গ্রামাঞ্চলেই করোনা আতংক। এতে করে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন বৃহৎ এলাকার সচেতন মহল। মানুষের মাঝে সচেতনতা না থাকায় এবং সামাজিক দুরত্ব বৃদ্বি কিংবা স্বাস্থ্যবিধি না মানায় এই রোগ বৃদ্বি পাচ্ছে। লকডাউনের মাঝে প্রশাসনিকভাবে নানা পদক্ষেপ নিলে ও হরেক রকম কৌশলে চলাফেরার অভিযোগ অসচেতন মানুষের বিরুদ্বে। শহরসহ জেলাব্যাপী যে হারে করোনা রোগী সংক্রমিত হচ্ছে, সে হারে আতংকিত করে তুলছে সচেতন মহলকে।
গ্রামীণ জনপদের অদক্ষ জনগোষ্টিসহ সাধারণ মানুষের মাঝে রোগ-বালাই নিয়ে তেমন কোন ধরনের উদ্বেগ না থাকায় এই রোগ বাড়তে পারে। পাড়া মহল্লায় সব দোকানপাট খোলা, যেখানে সেখানে ঘুরে বেড়াচ্ছে লোকজন। যা ইচ্ছা তাই করছে। দেখার যেন কেউ নেই। বিধি নিষেধ মানছেনা, প্রচার-প্রচারণা তোয়াক্কা করছেনা। ঘরে থাকুন, মাস্ক পড়ুন, সুস্থ থাকুন, নিজে বাঁচুন এবং অপরজনকে বাঁচান এসব কথাকে গুরুত্ব দিচ্ছেনা অধিকাংশ লোকই। শতকরা ৭০ ভাগ মানুষ অসচেতন।
সঠিকভাবে মাস্ক পরিধান, সামাজিক দূরত্ব বজায়, অযথা ঘুরাফেরা না করা, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার, সাবান দিয়ে ঘনঘন হাতধৌত করাসহ সরকারের নির্দেশনা মতে প্রচার-প্রচারনায় ক্ষেত্রে কোন ঘাটতি রাখেনি। সত্যজনক হলেও দু:খ যে, ঈদগাঁওর সাধারণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে নিজেকে বাঁচার মত কোন প্রকার আগ্রহতা লক্ষ্য করা যাচ্ছেনা। মাস্কবিহীন ঘুরাফেরা করে যাচ্ছেন অনেকেই।
সরকার দ্বিতীয় দফায় আরো সাতদিন লকডাউন ঘোষণা দিলেও বাস্তবায়নে স্থানীয় পুলিশের মাঝে তেমন কঠোরতা দেখা যাচ্ছেনা। নিবার্হী কর্মকতা কক্সবাজার সদর সুমাইয়া আক্তার সুইটি প্রায় প্রতিদিন ঈদগাঁও বাজার, বাসস্টেশন ও বৃহত্তর ঈদগাঁওর বিভিন্ন স্থানে সচেতনতার লক্ষ্যে মাঠে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। লকডাউন কঠোর ভাবে বাস্তবায়ন করতে মাঠে নেই আ.লীগসহ অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। পাশপাশি স্বেচ্ছাসেবকও নেই।
এদিকে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার নিদের্শে ঈদগাঁও বাজার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত চলবে। এমন একটি সাইনবোর্ড চোখে পড়ে। সেটিও মানা হচ্ছেনা সন্ধ্যার পরেও দোকান বন্ধ করা হয়না। এমনি অসচেতনতায় নিজের জীবন কতটুকু ঝুঁকিতে সেই নিজেও জানেনা।
মহাসড়কে দুরপাল্লার যান চলাচল না করলেও কিন্তু ঈদগাঁও বাজারের বিভিন্ন অলিগলিসহ সড়ক উপসড়কে দেদারছে চলাচল করছে তিনচাকার যানবাহন। দেখার যেন কেউ নেই। লকডাউন হালকায় চলছে। কঠোরতার দেখা নেই। ঝুকিঁতে গ্রামীন জনপদের মানুষ। তারা আতংকেও।
সচেতন লোকজন জানান, বাজারের পাশা পাশি পাড়া মহল্লাতেও লকডাউন না মানায় করোনা আতংক কাটছেনা এলাকাবাসীর মাঝে।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

একই রকম আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021 matamuhuri.com
কারিগরি সহযোগিতায়: Infobytesbd.com
Jibon