রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০২:১৩ অপরাহ্ন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৭৭২,১২৭
সুস্থ
৭০৬,৮৩৩
মৃত্যু
১১,৮৭৮
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট

চমেক হাসপাতালে রোগীদের দুর্ভোগ, ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি অব্যাহত

বশির আল মামুন, চট্টগ্রাম ব্যুরো
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১

চমেক হাসাপাতালে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ওপর হামলাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবিতে কর্মবিরতি অব্যাহত রেখেছেন ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। অভিযুক্তদের শাস্তি নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত এই কর্মবিরতি চালিয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন তারা। দ্বিতীয় দিনের মতো ২৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবারও সকাল থেকে হাসপাতালের কোনো ওয়ার্ডে চিকিৎসা সেবা দেননি তারা। এতে দুর্ভোগ পড়েছেন হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডের রোগী, ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসাসেবা। লকডাউনে গণপরিবহণ বন্ধ থাকা সত্ত্বেও হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগীরা পোহাচ্ছেন চরম দুর্ভোগ।
বৃহস্পতিবার হাসপাতালে রোগীদের দুর্ভোগের চিত্র দেখা গেছে হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে। এছাড়া পর্যাপ্ত চিকিৎসক না থাকায় বিভিন্ন বহির্বিভাগেও সেবা ব্যাহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এরআগে মঙ্গলবার রাতে চমেক ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষের জেরে দুইজন ইন্টার্ন ডাক্তারসহ পাঁচজন আহত হন। এরমধ্যে চমেকের ৫৭তম ব্যাচের ইন্টার্ন ডাক্তার ও বর্তমান সভাপতি হাবিবুর রহমানও রয়েছেন। এর জের ধরে বুধবার থেকে কর্মবিরতি চালিয়ে যাচ্ছেন ইন্টার্ন চিকিৎসকরা।
এদিকে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের এই কর্মবিরতির কর্মসূচীর সমর্থনে বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে হাসপাতালের মূল ফটকে সামনে মানববন্ধন করেন চিকিৎসকরা। এসময় তারা ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ওপর হামলাকারীদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনাসহ বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মেডিকেলের শান্ত পরিবেশ বিনষ্ট করতে একটি মহল কাজ করছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার পরিকল্পিতভাবে দুই চিকিৎসকের ওপর হামলা চালানো হয়। শুধু তাই নয়, মেডিকেলে বহিরাগতরা অবস্থান নিয়ে হাসপাতালে ভাঙচুর করে এবং ছাত্রাবাসে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের অবরুদ্ধ করে রাখে। এতকিছুর পরও প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করছে। চমেক হাসপাতাল ইন্টার্ন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের আহ্বায়ক ডা. ওসমান গণি বলেন, চিকিৎসকদের ওপর হামলার ঘটনায় হাসপাতালের পরিচালক ও অধ্যক্ষ বরাবরে লিখিতভাবে আমাদের দাবিসমূহ উপস্থাপন করেছি। কিন্তু কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়নি। দাবি না মানা পর্যন্ত কর্মবিরতি চলমান থাকবে। মানববন্ধন শেষে ইন্টার্ন চিকিৎসক নেতারা মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এক জরুরি সভায় বসেন। সভায় ঘটনা তদন্তে মেডিকেলে দুজন উপ-পরিচালক ও মেডিসিন বিভাগের একজন অধ্যাপকের নেতৃত্বে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবির বলেন, আজকে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের সাথে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। এ বিষয়টি সমাধানে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি এই ঘটনায় প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করতে কাজ করবে। আশা করি এই সমস্যার দ্রুত সমাধান হবে।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

একই রকম আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021 matamuhuri.com
কারিগরি সহযোগিতায়: Infobytesbd.com
Jibon