রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০২:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেশের আলোচিত মেজর সিনহা হত্যার আজ এক বছর ছিনতাইকারী নারী টিকটকার গ্রেফতার এশিয়ান হাসপাতালের এমডির বিরুদ্ধে মারধর ও লুটের অভিযোগ চট্টগ্রামের দুদক কর্মকর্তার ‘বদলির আদেশ’ স্থগিত করলেন হাইকোর্ট বর্ষা এলেই চট্টগ্রামের পাহাড়ে শুরু হয় মানুষ সরানোর তোড়জোড় ঈদগাঁওতে পানিবন্দি অসহায়দের মাঝে চাল-ডাল বিতরণ ঈদগাঁওতে নিহত ৩ যুবকের জানাযায় শোকার্ত মানুষের ঢল চকরিয়ায় তীব্র খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির সংকট : বন্যায় তিন লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মারুফের নিদের্শনায় পোকখালীতে খাবার বিতরণ স্ত্রীকে সাথে নিয়ে বন্যায় পানিবন্দি অসহায় মানুষের পাশে জেলা পরিষদ সদস্য কমরউদ্দিন

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,২৪৯,৪৮৪
সুস্থ
১,০৭৮,২১২
মৃত্যু
২০,৬৮৫
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
৯,৩৬৯
সুস্থ
১৪,০১৭
মৃত্যু
২১৮
স্পন্সর: একতা হোস্ট

ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৫ জুন, ২০২১

রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশের নাগরিক হওয়ার সুবিদা দানের অভিযোগে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার এক ইউপি চেয়ারম্যান, এক ইউপি সদস্যসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মঙ্গলবার (১৫ জুন) দুদক জেলা সমন্বিত কার্যালয়, চট্টগ্রাম-২-এর উপ-সহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলেন হাটহাজারীর মির্জাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. নুরুল আবছারের, ওই ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মো. নুরুল ইসলাম, জন্ম নিবন্ধন প্রস্তুতকারী মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন ও চট্টগ্রাম নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের চার কর্মচারী এবং চার রোহিঙ্গাসহ মোট ১১ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলায় তাদের বিরুদ্ধে জন্মসনদ, জাতীয়তা সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) প্রদান এবং পাসপোর্ট আবেদন করতে সহায়তা করার অভিযোগ করা হয়েছে।
মামলায় অপর আসামীরা হলেন নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের চার কর্মচারী- মো. জয়নাল আবেদীন, মো. নুর আহম্মদ, মো. সাইফুদ্দিন চৌধুরী ও সত্য সুন্দর দে। চার রোহিঙ্গা আসামি হলেন- মো. আবদুস ছালাম, মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, লাকি (প্রকৃত নাম রমজান বিবি) এবং নজির আহমদ।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আসামি মো. আবদুস ছালাম একজন রোহিঙ্গা। তিনি দীর্ঘদিন ধরে হাটহাজারীর মির্জাপুর ইউনিয়ন এলাকায় বসবাস করে আসছিলেন। তিনি আগে থেকে বাংলাদেশের আইডি কার্ড, জাতীয়তা সনদ তৈরি করেছেন। নিজে এসব সনদ জোগাড় করার পর তিনি টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন রোহিঙ্গা নাগরিকদের বাংলাদেশের নাগরিক বানানোর জন্য দালালিতে নেমেছেন। আবদুস ছালাম ২০১৯ সালে মির্জাপুর ইউনিয়ন থেকে রমজান বিবি নামে এক রোহিঙ্গা নাগরিককে নিজের মৃত মেয়ে লাকির নাম ব্যবহার করে আইডি কার্ড তৈরি করে দেন। এছাড়াও রমজান বিবির দুই মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস ও জান্নাতুল বাকির নামে জন্মসনদ ও জাতীয়তা সনদ তৈরি করে দেন। এরপর তিনজনের পাসপোর্ট ফরম পূরণ করে আবেদন জমা দেয়ার ব্যবস্থা করে দেন। সবকিছু জেনেও টাকার বিনিময়ে আবদুস ছালামকে এসব কাজে সহায়তা করেন তার ছেলে মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, মির্জাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আবছার, ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম, জন্ম নিবন্ধন প্রস্তুতকারী বেলাল উদ্দিন। সৌদি আরবে প্রবাসে থেকে রমজান বিবিকে এসব কাজে নির্দেশনা দেন তার স্বামী ও রোহিঙ্গা নাগরিক নজির আহমদ।
এ বিষয়ে দুদক কর্মকর্তা মো. শরীফ উদ্দিন বলেন, ‘রোহিঙ্গা নাগরিক রমজান বিবি ও তার দুই মেয়েকে পাসপোর্ট আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করার দায়ে ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছেন- হাটহাজারীর মির্জাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান, মেম্বার ও জন্ম নিবন্ধন প্রস্তুতকারী। এছাড়াও আসামি করা হয়েছে চট্টগ্রাম ও হাটহাজারী নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের চার কর্মচারীকে এবং চারজন রোহিঙ্গা নাগরিককে।’ আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে অবৈধ কাজ করে লাভবান হয়েছেন বলে জানান তিনি।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

একই রকম আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021 matamuhuri.com
কারিগরি সহযোগিতায়: Infobytesbd.com
Jibon