শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৪২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কৈয়ারবিলে নৌকা পেতে মরিয়া বিএনপির আবজাল বসে নেই আ.লীগ নেত্রী রেখাও হাটহাজারীতে মন্দির ভাংচুরের মামলায় বিএনপির তিন নেতা গ্রেফতার ফাইজারের টিকা নিতে মানুষের হুমড়ি শেখ রাসেলের জন্মদিনে চট্টগ্রামে জেলা প্রশাসনের নানা কর্মসুচী চকরিয়ায় আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে কোমল পানীয় বাবলআপ এর ডিপো আল-রাজি চক্ষু এন্ড ডক্টরস চেম্বার প্রতিষ্ঠানটি নিলামে বিক্রয় করা হবে যে কোনো মূল্যে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন : জাসদ লামায় প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে আর্থিক অনুদান বিতরণ খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ কাকারা ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ইছমতের প্রার্থীতা ঘোষণা

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,৫৬৭,১৩৯
সুস্থ
১,৫৩০,৬৪৭
মৃত্যু
২৭,৮০৫
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
২৩২
সুস্থ
৫৬৪
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট

আমাদের উপলব্ধি কখন জাগ্রত হবে ?

মাতামুহুরী ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১

মনুষ্য জাতির সমস্যা অনেকগুলো । তারমধ্যে প্রধানতম একটি স্বীকৃতিবিহীন সমস্যা হচ্ছে মনুষ্য জাতি বুঝে- না বুঝে অনর্গল কথা বলে যায় । তাঁরা কথা বলার সময় খেয়াল রাখে না তাঁর ব্যবহৃত বাক্যগুলো গুরুত্বপূর্ণ না গুরুত্বহীন ? অবশ্য উন্নত বিশ্বের মধ্যে এরকম অমূলক কাজের তৎপরতা খুব একটা দেখা যায় না। তাঁরা স্থান, কাল, পাত্র ভেদে কথা বলে । তাঁরা ওজন পরিমাপ করে কথা বলতে জানে। কিন্তু আমাদের অলস জাতি ( বাঙালী ) তাঁদের মূল্যবান জীবনের অনেকটুকু সময় নষ্ট করে অযাচিত কথাবার্তার রসাতলে । আমরা বরংচ ওজন পরিমাপ করে কথা বলতে জানি না। আমরা যেকোন বিষয়ে কথা বলবার পূর্বে এটা ভাবি না যে, ‘ আমাদের কণ্ঠ দিয়ে উচ্চারিত প্রতিটি শব্দ সত্য এবং যথোপযুক্ত কিনা। ‘

সত্য এবং অসত্য দুটিকে পার্থক্য করতে না জানলে সামাজিক জীবনে আপনার বিস্তর সমস্যার উদ্ভব হয় । মানুষকে সামনে থেকে দেখলে চেনা যায় না । যেহেতু মানুষের মন পড়ার ক্ষমতা মনুষ্য জাতিকে স্রষ্টা দান করেননি সেহেতু দৃঢ়চেতা, গম্ভীর, স্পষ্টবাদী ( প্রয়োজন মতোন কথা বলা ) মানুষকে কখনো একবাক্যে জাজ করে বলা যাবে না যে মানুষটির মন সহজ এবং সাবলীল নয় ।

মানুষের মনকে পড়ার জন্য অবশ্য একটি সিস্টেমেটিক ওয়ে আছে। কিন্তু আপনাকে সে প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করবার জন্য মনস্তাত্ত্বিকভাবে নিজেকে তৈরী করে নিতে হবে । আপনার মননকে পরিশুদ্ধ করে নিতে হবে। মানুষকে জানার সে সিস্টেমেটিক ওয়েটি হচ্ছে – মানুষকে তাঁর উদার নৈমিত্তিক মন-মানসিকতা এবং ভালো কাজ গুলোর মধ্য দিয়ে তাকে জাজ করুন। তাকে নেতিবাচক কাজগুলো দিয়ে জাজ করুন । এতে কোন রকম সমস্যা নেই । কিন্তু আপনার সঙ্গে বসে প্রয়োজনীয় সময় নষ্ট করে সুমিষ্ট কথা না বলার অপরাধে আপনি মানুষকে নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে জাজ করতে পারেন না । এটা মুর্যাল ইথিকস এর মধ্যে যায় না । যেতে দেওয়া যায় না।

কোনটি অহংকার আর কোনটি আত্মমর্যাদাবোধ (!) আমাদের মধ্যে এখনো সে প্রয়োজনীয় উপলব্ধির বীজ বপিত হয়নি । আমরা আত্মসম্মান এবং অহমিকা দুটিকে নিজেদের ভুল মানদণ্ড দিয়ে বিচার করে এদের মূল অর্থসমূহ পাল্টে দিয়েছি । কিন্তু কোন মূল শব্দের অর্থ পাল্টে দেওয়ার ইখতিয়ার কোন সাধারণ মানুষের যে নেই সেটি ভুলে গেলে চলবে না। দ্রোহ, প্রেম এবং সাম্যবাদী চেতনার কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘আমার পথ ‘ প্রবন্ধ থেকে দম্ভ এবং আত্মসম্মানের মধ্যে মূল পার্থক্য কোথায় তার সুস্পষ্ট বর্ণনা পাওয়া যায় । কবি ‘আমার পথ ‘ প্রবন্ধে শুরুর দিকে লিখেছেন -‘আমার কর্ণধার আমি । আমার পথ দেখাবে আমার সত্য । আমার যাত্রা-শুরুর আগে আমি সালাম জানাচ্ছি-নমস্কার করছি আমার সত্যকে । ‘

তার একটু পর একই প্রবন্ধে তিনি লিখেছেন –

‘এই যেন, নিজকে চেনা, আপনার সত্যকে আপনার গুরু, পথপ্রদর্শক কাণ্ডারি বলে জানা, এটা দম্ভ নয়, অহংকার নয় । এটা আত্মকে চেনার সহজ স্বীকারোক্তি । ‘

কবি নজরুল ইসলামের প্রবন্ধ থেকে নেওয়া উদ্বৃতি দুটি থেকে দম্ভ এবং আত্মসম্মানবোধের মধ্যে বিবেচনাধীন পার্থক্য সহজে অনুমেয় করা যায় । প্রচলিত ধারণা অনুযায়ী, নিজের আপন সত্য নিয়ে যারা যাপিত জীবন অতিবাহিত করে, সে সত্যকে আঁকড়ে ধরার সময় যারা দুনিয়ার সকল মোহ উপেক্ষা করতে পারে, বন্ধন ছিন্ন করতে পারে, তাঁদেরকে অবিহিত করা হচ্ছে, আত্ম অহংকারে নিমজ্জিত মানুষ হিসেবে । অথচ ‘ নিজের সত্যকে আপন গুরু, পথপ্রদর্শক কাণ্ডারি বলে জানাটা কোন রকমের দম্ভ নয়, অহংকার নয়। এটা আত্মকে চেনার সহজ স্বীকারোক্তি ‘- সে বিষয়টি চুলছাঁটা বিশ্লেষণ করে যথাযোগ্য জবাব দিয়ে গেছেন কবি নজরুল ইসলাম। কবি নজরুল ইসলামের যথোপযুক্ত উদ্বৃতি দুটি উপস্থাপন করার পর আমার মনে হয়েছে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্টভাবে আর কোন বক্তব্য রাখবার প্রয়োজন নেই । তাঁর এই উদ্বৃতিসমূহ আমার আলোচ্য বিষয়টিকে একেবারে পরিষ্কার করে দিয়েছে । কাজেই, আমি কেবল মানুষের উপলব্ধি বোধ ধীরে -ধীরে আরো বেশী সুসংহত হবে – সেটুক আশা রাখছি ।

লেখক :
তানভীর মোর্শেদ তামীম, তরুণ কলামিস্ট ও লেখক ।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

একই রকম আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021 matamuhuri.com
কারিগরি সহযোগিতায়: Infobytesbd.com
Jibon